০৪/০৪/২০২০ ১১:৫৩:৪৩

matrivhumiralo.com পড়ুন ও বিজ্ঞাপন দিন

প্রতি মুহূর্তের খবর

o করোনা মোকাবিলায় মেডিক্যাল টিমসহ ১০০ সেনাসদস্য o করোনাভাইরাস প্রতিরোধে কার্যক্রম শুরু করেছে সেনাবাহিনী o করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সেনাবাহিনীর মতবিনিময় o করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সুন্নতে খাৎনার অনুষ্ঠান বন্ধ o আগামী সপ্তাহ করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের গুরুত্বপূর্ণ
আপনি আছেন : প্রচ্ছদ  >  সাহিত্য  >  মানুষকে কেন্দ্র করে বৃত্ত কতোখানি বড়

মানুষকে কেন্দ্র করে বৃত্ত কতোখানি বড়

পাবলিশড : ২৪/০৩/২০১৮ ১৪:৩১:০৭ পিএম আপডেট : ২৪/০৩/২০১৮ ১৪:৩৪:০৭ পিএম
মানুষকে কেন্দ্র করে বৃত্ত কতোখানি বড়

লুৎফুল হোসেন ::

বিস্তারের ব্যাপ্তিতে একটা মানুষকে কেন্দ্র করে বৃত্ত কতোখানি বড় কিংবা আরও বড় হতে পারে ! সেই পরিধির এক নমুনা রেখে গেলেন একটা মানুষ। যাঁর ইহজাগতিক প্রস্থানের পরও মানুষ সেই বৃত্তপরিধির খণ্ড খণ্ড জ্যা আবিষ্কার করে চলেছে। গান লেখায় তার তেমন ইচ্ছে ছিল না, অথচ অগুন্তি নামকরা গীতিকারের চেয়ে কিছুমাত্র কম নয় বরং সবার অনেক অনেক পছন্দের অনেক গানই লিখে গেছেন এই মানুষটা। সময়ে বুঝিবা সবার জানা হয়নি। প্রয়াণ মাত্রেই শোক ও স্মৃতিকে ঘিরে, শব্দে শ্রদ্ধাপ্রদীপ জ্বালিয়ে বাংলাদেশের মানুষ যখন সামাজিক মাধ্যমে একে একে তাঁর নানান বিষয় নিয়ে লিখছে; তাদের কেউ কেউ তাঁর গান নিয়ে লিখছেন। বিস্ময়ের মাত্রা বাড়ছে মানুষের। কবিতা, গল্প, উপন্যাস, নাটক কি লেখেননি। শুধু যে লিখেছেন এক জাদুর কলম দিয়ে তা নয়, তার পাঠেও ছিল মন্ত্রমুগ্ধকর অনন্য এক জাদুমন্ত্র। সত্যিই তাঁকেই বলতে হয় সেই বাজিকর।

...   ...   ...   ...   ...  তারে কই বড় বাজিকর
যে তার রুমাল নাড়ে পরানের গহীন ভিতর

সেই রুমাল যে নাড়ে বেশুমার বুকের ভিতর, তার লাগি নিমিষে হয়া পড়ে সকলে কাতর। অমন অমোঘ কথার বুননে অলৌকিক পুরুষটি বুঝিবা দেখে ফেলেছিলেন নিজেই তাঁর অনাগতটুকুনও। তাই বুঝি নিয়তি তোমারে দিয়াছে ব্যাধি, নিরাময় অসম্ভব যার ? ভাবলেই শোকে ও শ্রদ্ধায় ন্যুব্জ হতে হয়, ভীষণ আর্দ্র হতে হয়।

হৃদগভীরে বিম্বিত শোকধ্বনি 

পায়ের আওয়াজ পাচ্ছি তোমার,
শহর জুড়ে যাচ্ছো তো বেশ
লঘু লয়ে পদব্রজে।
বুকের ভিতর মেঘলা আমার
শোকের ছুরি যাচ্ছে কেটে
রক্তপাতের যন্ত্রণাতে।

বলো দেখি -
তোমার হাতের কলমখানি
যাবে এখন কোন তল্লাটে ! 
জানো নাকি -
সৃষ্টিনেশায় অপেক্ষমান
কাগজগুলো শব্দ খোঁজে।

তোমার হাতের শব্দ খোঁজে।

জানি এসব কিচ্ছুটি আর
ঘটবে না এই জগতটাতে
শোকমাতমে দুর্ণিবার তাই
বুকের ভিতর বর্ষা নামে।