৩০/০৫/২০২০ ১০:২৩:১৩

matrivhumiralo.com পড়ুন ও বিজ্ঞাপন দিন

প্রতি মুহূর্তের খবর

o ফেরিঘাটে আটকেপড়া মানুষদের ফিরে আসার আহ্বান : বেনজীর আহমেদ o স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদের নামাজ পড়তে হবে o করোনা মোকাবিলায় মেডিক্যাল টিমসহ ১০০ সেনাসদস্য o করোনাভাইরাস প্রতিরোধে কার্যক্রম শুরু করেছে সেনাবাহিনী o করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সেনাবাহিনীর মতবিনিময়
আপনি আছেন : প্রচ্ছদ  >  শিক্ষা  >  জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা শুরু হবে ১ নভেম্বর

জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা শুরু হবে ১ নভেম্বর

পাবলিশড : ২৬/১০/২০১৭ ১১:১৭:০৭ এএম আপডেট : ২৬/১০/২০১৭ ১১:২৩:১০ এএম
জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা শুরু হবে ১ নভেম্বর

মাতৃভূমির আলো ডেস্ক ::

 জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা শুরু হবে ১ নভেম্বর। এ পরীক্ষায় মোট ২৪ লাখ ৬৮ হাজার ৮২০ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করবেন। গত বছরের তুলনায় এবার মোট পরীক্ষার্থী বেড়েছে ৫৬ হাজার। তার মধ্যে রেকর্ড সংখ্যক ছাত্রীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। ছাত্রদের তুলনায় ছাত্রীর সংখ্যা বেড়েছে ১ লাখ ৭৯ হাজার ২৬৪ জন।

আজ বুধবার সচিবালয়ে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষা নিয়ে মন্ত্রী জানান, এ বছর ২৪ লাখ ৬৮ হাজার ৮২০ জন শিক্ষার্থী জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় অংশ নেবে। মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে ১৩ লাখ ২৪ হাজার ৪২ জন ছাত্রী; ছাত্র সংখ্যা ১১ লাখ ৪৪ হাজার ৭৭৮।

গত বছর পরীক্ষার্থী ছিল ২৪ লাখ ১২ হাজার ৭৭৫ জন। মোট পরীক্ষার্থী বেড়েছে ৫৬ হাজার ৪৫ জন। এবার ছাত্রদের তুলনায় ছাত্রী সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে ১ লাখ ৭৯ হাজার ২৬৪ জন। এবার সারা দেশে মোট ২ হাজার ৮৩৪টি কেন্দ্রে পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এ বছর জেএসসিতে মোট পরীক্ষার্থী ২০ লাখ ৯০ হাজার ২৭৭ জন। তার মধ্যে ছাত্র ৯ লাখ ৭১ হাজার ৩৩৬ জন এবং ছাত্রী ১১ লাখ ১৮ হাজার ৯৪১ জন। অন্যদিকে, জেডিসিতে মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৩ লাখ ৭৮ হাজার ৫৪৩ জন। তার মধ্যে ছাত্র ১ লাখ ৭৩ হাজার ৪২২ জন ও ছাত্রী ২ লাখ ৫ হাজার ১০১ জন রয়েছেন।

দেশের বাইরের নয়টি কেন্দ্রে এবার ৬৫৯ জন জেএসসি পরীক্ষায় অংশ নেবে। এবারও বাংলা দ্বিতীয় পত্র, ইংরেজি প্রথম ও দ্বিতীয় পত্র ছাড়া অন্য বিষয়ের পরীক্ষা সৃজনশীল প্রশ্নে নেয়া হবে বলে শিক্ষামন্ত্রী নাহিদ জানান।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, পরীক্ষা শুরুর ৩০ মিনিট আগে বাধ্যতামূলক পরীক্ষার্থীদের কেন্দ্রে উপস্থিত হতে হবে। প্রতিবন্ধী পরীক্ষার্থীরা এবারও অতিরিক্ত ২০ মিনিট সময় পাবে। এছাড়া দৃষ্টি প্রতিবন্ধী, সেরিব্রাল পালসজনিত প্রতিবন্ধী এবং যাদের হাত নেই, তারা শ্রুতিলেখক সঙ্গে নিয়ে পরীক্ষা দিতে পারবে।

নাহিদ বলেন, পরীক্ষা শেষ হবে ১৭ নভেম্বর। আমরা ৩০ ডিসেম্বরের মধ্যে ফল দেব। নকলমুক্ত পরীক্ষা গ্রহণ ও প্রশ্নপত্র ফাঁস হওয়া প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব সোহরাব হোসাইন, কারিগরি ও মাদরাসা বিভাগের সচিব মো. আলমগীর হোসেন, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ওয়াহিদুজ্জামান, আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটির সভাপতি অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান ছাড়াও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।সংবাদ সম্মেলনে এ সব তথ্য জানান

এ বিভাগের সর্বশেষ