০৭/০৬/২০২০ ০২:১৯:৫৪

matrivhumiralo.com পড়ুন ও বিজ্ঞাপন দিন

প্রতি মুহূর্তের খবর

o ফেরিঘাটে আটকেপড়া মানুষদের ফিরে আসার আহ্বান : বেনজীর আহমেদ o স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদের নামাজ পড়তে হবে o করোনা মোকাবিলায় মেডিক্যাল টিমসহ ১০০ সেনাসদস্য o করোনাভাইরাস প্রতিরোধে কার্যক্রম শুরু করেছে সেনাবাহিনী o করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সেনাবাহিনীর মতবিনিময়
আপনি আছেন : প্রচ্ছদ  >  খেলাধুলা  >  ফিফার বর্ষসেরা পুরস্কার রোনালদোর

ফিফার বর্ষসেরা পুরস্কার রোনালদোর

পাবলিশড : ২৪/১০/২০১৭ ১২:০৬:০৮ পিএম
ফিফার বর্ষসেরা পুরস্কার রোনালদোর

মাতৃভূমির আলো ডেস্ক ::

লিওনেল মেসিকে হারিয়ে ফিফার বর্ষসেরার পুরস্কার ফের জিতলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। টানা দ্বিতীয়বারের মতো ফিফার ‘দ্য বেস্ট’ পুরস্কার বাগিয়ে নিয়েছেন তিনি। গত এক বছরে ফুটবলীয় কীর্তিতে সবাইকে পেছনে ফেলে পর্তুগিজ ফরোয়ার্ডই হয়েছেন ফিফার বর্ষসেরা পুরুষ খেলোয়াড়।

১৯৯১ সাল থেকেই নিয়মিতভাবে বর্ষসেরা ফুটবলার পুরস্কার দিয়ে আসছিল ফিফা। ২০১০ সাল থেকে ফ্রান্স ফুটবলের ব্যালন ডি’অরের সঙ্গে মিলে একীভূত হয়ে সেটির নাম হয়ে যায় ফিফা-ব্যালন ডি’অর। ছয় বছর একসঙ্গে পথচলার পর গত বছর আবার আলাদা হয়ে যায় ফিফা আর ফ্রান্স ফুটবল। কিছু পরিবর্তন এনে ব্যালন ডি’অর দেয়া হচ্ছে আগের মতোই। আঙ্গিকে বেশ পরিবর্তন এনে ফিফার পুরস্কারটা গত বছর যাত্রা শুরু করেছে ‘দ্য বেস্ট’ নামে নতুনভাবে। প্রথমবারই সেরা হয়েছেন রোনালদো।
সেটাও ২০১৭ সালের শুরুতেই। বছর পেরোনোর আগেই অর্থাৎ জানুয়ারি থেকে অক্টোবর আসতে আসতে রোনালদোর শোকেসে যোগ হয়েছে আরো একটা লা লিগার ট্রফি, আরও একটা ক্লাব বিশ্বকাপ এবং আরও একটা চ্যাম্পিয়নস লিগ। চ্যাম্পিয়নস লিগে টানা পঞ্চমবারের মতো সর্বোচ্চ গোলদাতা হয়েছেন। গত বছর দেশের হয়ে ইউরো জেতানোর পর এ বছর পর্তুগালকে তুলেছেন কনফেডারেশনস কাপের সেমিফাইনালে। এসব কীর্তিতেই মেসি ও নেইমারকে টপকে সেরা হয়েছেন রোনালদো।

পুরস্কার জিতে রোনালদো বলেন, ‘‘ধন্যবাদ আমায় ভোট দিয়ে পুরস্কার জিততে সাহায্য করার জন্য।’’
রোনালদো নিয়ে প্রশ্ন উঠলে জিনেদিন জিদান অন্য কোনো তারকা ফুটবলারের দিকে তাকাতে নারাজ। বলছেন, ‘‘এখন পর্যন্ত রোনালদোই সেরা।’’

মজার ব্যাপার এটাই যে রিয়াল মাদ্রিদের জার্সি গায়ে চলতি মরসুমে লা লিগার প্রথম চার ম্যাচে খেলতে পারেননি সিআর সেভেন। কারণটা ম্যাচ সাসপেনশন। কিন্তু শেষ পাঁচ ম্যাচে তিনি করেছেন মোটে এক গোল। রবিবার রাতে রিয়াল লা লিগার ম্যাচে এইবারকে ৩-০ হারালেও রোনাল্ডো মিস করেন গোলের সহজ সুযোগ। তাও আবার একাধিক বার।
চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে এ পর্যন্ত দশ গোল করেছেন রোনালদো। সেখানে চলতি মরসুমে বার্সেলোনার জার্সি গায়ে মোট পনেরো গোল হয়ে গিয়েছে রোনালদোর প্রতিদ্বন্দ্বী লিওনেল মেসির। এ বাইরেও রয়েছে বিশ্বকাপের বাছাই পর্বের শেষ ম্যাচে ইকুয়েডরের বিরুদ্ধে ঝলমলে হ্যাটট্রিক করে আর্জেন্টিনাকে মূলপর্বে তোলা।

জিদান অবশ্য মেসির সঙ্গে রোনালদোর সাম্প্রতিক ফর্মের কোনো তুলনা বা পরিসংখ্যানের পথে হাঁটেননি। বরং তিনি বলেন, ‘‘বহুদিন ধরেই রোনাল্ডোই সেরা। আর সেটা দীর্ঘদিন ধরে প্রমাণ করে চলেছে ও। বড় ম্যাচে সব সময়েই ওকে সেরা ছন্দে পাওয়া যায়। ফলে সব সম্মানের যোগ্য উত্তরাধিকারী রোনালদো। সব সময়েই ও মাঠে নামে সেরা হয়ে ফেরার একাগ্রতা নিয়েই।’’

রোনালদোর পাশাপাশি তার টিমের ফরাসি ফরোয়ার্ড করিম বেঞ্জেমার হয়েও কথা বলেছেন রিয়াল মাদ্রিদ কোচ জিদান। সম্প্রতি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ঘরের মাঠে টটেনহ্যামের বিরুদ্ধে ১-১ ড্র করে জিদানের দল। তার পরেই প্রাক্তন ইংল্যান্ড স্ট্রাইকার গ্যারি লিনেকার বেঞ্জেমা সম্পর্কে মন্তব্য করেন, ‘‘ও নিজের যোগ্যার চেয়ে অতিরিক্ত প্রচার পায়।’’
লিনেকারের সেই মন্তব্যের প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে জিদান বলেন, ‘‘টিভিতে লিনেকার অনেক কিছুই বলতে পারেন। তবে আমার মতে ও মোটেই যোগ্যতার চেয়ে বেশি প্রচার পায় না।’’ রবিবার রাতে এইবারের বিরুদ্ধে বেঞ্জেমার বাড়ানো বল থেকেই ৩-০ করেন মার্সেলো।
বেঞ্জেমা সম্পর্কে জিদান আরো বলেন, ‘‘করিম গোটা মরসুমে হয়তো ৬০ গোল করে না। কিন্তু তিরিশটা গোল করে। আর তিরিশটা গোল করায়। মাঠে ওকে দেখতে ভালোই লাগে আমার।’’

পুরুষ দলের সেরা কোচের পুরস্কারটা গেছে রিয়াল মাদ্রিদে। ইতিহাস গড়ে টানা দুই চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতানোর পুরস্কার বুঝে নিয়েছেন জিনেদিন জিদান। ফিফার বর্ষসেরা দলেও রিয়ালের জয়জয়কার। পাঁচজন খেলোয়াড় সুযোগ পেয়েছেন একাদশে। বার্সেলোনা ও জুভেন্টাসের তিনজন করে জায়গা পেয়েছেন একাদশে।

ফিফার বর্ষসেরা একাদশ : এখানে রিয়াল মাদ্রিদের ৫ খেলোয়াড় স্থান পেয়েছেন। আর বার্সেলোনা পেয়েছেন ৩ জন। তাহলে কি বলা যায় রিয়াল ৫, বার্সেলোনা ৩?
বুফন (জুভেন্টাস), আলভেজ (জুভেন্টাস, এখন পিএসজিতে), বোনুচ্চি (জুভেন্টাস, এখন এসি মিলানে), রামোস (রিয়াল মাদ্রিদ), মার্সেলো (রিয়াল মাদ্রিদ), মডরিচ (রিয়াল মাদ্রিদ), ক্রুস (রিয়াল মাদ্রিদ), ইনিয়েস্তা (বার্সেলোনা), নেইমার (বার্সেলোনা, এখন পিএসজিতে), মেসি (বার্সেলোনা), রোনালদো (রিয়াল মাদ্রিদ)।

শেষ ১০ বারের বিজয়ীরা :

ফিফা বর্ষসেরা

২০০৮ ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো

২০০৯ লিওনেল মেসি

একীভূত ফিফা ব্যালন ডি’অর

২০১০ লিওনেল মেসি

২০১১ লিওনেল মেসি

২০১২ লিওনেল মেসি

২০১৩ ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো

২০১৪ ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো

২০১৫ লিওনেল মেসি

দ্য বেস্ট ফিফা মেনস প্লেয়ার

২০১৬ ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো

২০১৭ ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো।

এ বিভাগের সর্বশেষ