০৭/০৬/২০২০ ০৩:০০:৪০

matrivhumiralo.com পড়ুন ও বিজ্ঞাপন দিন

প্রতি মুহূর্তের খবর

o ফেরিঘাটে আটকেপড়া মানুষদের ফিরে আসার আহ্বান : বেনজীর আহমেদ o স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদের নামাজ পড়তে হবে o করোনা মোকাবিলায় মেডিক্যাল টিমসহ ১০০ সেনাসদস্য o করোনাভাইরাস প্রতিরোধে কার্যক্রম শুরু করেছে সেনাবাহিনী o করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সেনাবাহিনীর মতবিনিময়
আপনি আছেন : প্রচ্ছদ  >  খেলাধুলা  >  আজ মুখোমুখি ভারত-পাকিস্তান

আজ মুখোমুখি ভারত-পাকিস্তান

পাবলিশড : ০৪/০৬/২০১৭ ১১:২৯:৪২ এএম
আজ মুখোমুখি ভারত-পাকিস্তান

খেলাধুলা ডেস্ক ::

আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির সবচেয়ে আর্কষণীয় ম্যাচে আজ রোববার মুখোমুখি হচ্ছে বিশ্ব ক্রিকেটের দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারত ও পাকিস্তান। বহুল প্রতিক্ষিত এ ম্যাচের দিকে তাকিয়ে আছে পুরো ক্রিকেট বিশ্ব। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ইতিহাসে এর আগে তিনবার মুখোমুখি হয়েছিলো তারা। এরমধ্যে দু’বারই ইংল্যান্ডের বার্মিংহামের এডজবাস্টনে। আগামীকালও এই ভেন্যুতেই লড়বে ভারত ও পাকিস্তান। এ লড়াই দিয়েই এবারের আসরে যাত্রা শুরু করবে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী। তাই জয় ছাড়া অন্য কিছুই ভাবছে না দু’দল। বাংলাদেশ সময় বেলা সাড়ে তিনটায় শুরু হবে ম্যাচটি।
রাজনৈতিক টানাপোড়েনের কারণে দীর্ঘ দিন যাবত ক্রিকেট ভক্তরা ভারত-পাকিস্তান দ্বিপক্ষীয় সিরিজ দেখার সুযোগ থেকে বঞ্চিত। সর্বশেষ ২০১৩ সালের জানুয়ারিতে ভারতের মাটিতে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে মুখোমুখি হয়েছিল দল দু’টি । তাই ভারত-পাকিস্তান লড়াই দেখতে মুখিয়ে থাকে ক্রিকেট ভক্তরা। এজন্য তাদের অপেক্ষা আইসিসির কোন ইভেন্ট বা অন্য কোন টুর্নামেন্টে। তবে আইসিসির ইভেন্টেই বেশিরভাগ দেখা হয়েছে ভারত ও পাকিস্তানের। সর্বশেষ ওয়ানডে সিরিজের পর তিনবার মুখোমুখি হয় তারা। একটি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি, পরেরটি এশিয়া কাপে এবং শেষটি ২০১৫ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপে।
তবে আবারো ভারত-পাকিস্তানের দেখা হচ্ছে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে। অষ্টম আসরে একই গ্রুপ অর্থাৎ ‘বি’ গ্রুপে থাকায় আবারো ক্রিকেট যুদ্ধে শামিল হচ্ছে ভারত-পাকিস্তান। চতুর্থবারের মত চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে মুখোমুখি হবে তারা। আগের তিনবারের মধ্যে দু’বার পাকিস্তান ও একবার জয়ী হয় ভারত। তাই চতুর্থ লড়াইটি পাকিস্তানের আরও এক ধাপ এগিয়ে যাওয়া নাকি, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির লড়াইয়ে ভারতের সমতা আনা সেটিই দেখার বিষয়।
কাগজে-কলমে শক্তি বিচারে বেশ এগিয়ে রয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারত। তবে চলমান বছরে মাত্র একটি ওয়ানডে সিরিজ খেলেছে টিম ইন্ডিয়া। দেশের মাটিতে তিন ম্যাচের ঐ সিরিজে ইংল্যান্ডকে ২-১ ব্যবধানে হারায় বিরাট কোহলির দল। ওয়ানডে অধিনায়ক হিসেবে কোহলির সেটিই ছিলো প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট। টেস্ট ম্যাচ বেশি থাকায় ওয়ানডেতে নিজেদের নিয়ে খুব বেশি পরীক্ষা করতে পারেনি ভারত।
তবে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির আগে দু’টি প্রস্তুতিমূলক ম্যাচে নিজেদের নিয়ে বেশ ভালোই পরীক্ষা-নিরিক্ষা করেছে ভারত। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম প্রস্তুতিমলূক ম্যাচে বৃষ্টি আইনে ৪৫ রানে জয়ের পর বাংলাদেশের বিপক্ষে দ্বিতীয় ও শেষ প্রস্তুতিমূলক ম্যাচে ২৪০ রানের বিশাল জয়ে বেশ চাঙ্গা ভারতীয় দল।
ক্রিকেটের প্রধান সংস্থা আইসিসির সাথে রাজস্ব নিয়ে মত বিরোধের কারণে প্রথমে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি বয়কটের ঘোঘণা দিয়েছিল ভারত। তাই নির্ধারিত সময়ের মধ্যে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির দল ঘোষণা করেনি তারা। পরে ৮ মে পূর্ণ শক্তির দল ঘোষণা করে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।
ইংল্যান্ডের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়ার আগে ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি বলেছিলেন, ‘আমরা সব সময়ই বলেছি, জয়ের জন্য আমরা ক্ষুধার্ত থাকি।’
কোহলির নেতৃত্বে ভারত দলকে সেরা ব্যাটিং লাইন-আপ বলে কিছুদিন আগে আইসিসি’র নিজস্ব ওয়েবসাইটে এক কলামে লিখেছিলেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক শহিদ আফ্রিদি, ‘কোহলির কাঁধে চলে ভারত সামনের দিকে এগিয়ে যায়। রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, আজিঙ্কা রাহানে, যুবরাজ সিং ও মহেন্দ্র সিং ধোনি সকলেই ম্যাচ জয়ী খেলোয়াড়। মোহাম্মদ সামি, ভুবেনশ্বর কুমার, রবীন্দ্র জাদেজা ও রবীচন্দ্রন অশ্বিনের গড়া বোলিং আক্রমন দারুন ভারসাম্যপূর্ণ।’
তবে পাকিস্তান দলে অভিজ্ঞ সরফরাজ আহমেদ ছাড়া আশা করার মত এবং পারফর্ম করার খেলোয়াড় নেই। উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান হিসেবে দারুন সরফরাজ। নয়া হার্ড-হিটার খেলোয়াড় ফাহিম আশরাফকে নিয়ে কিছুটা হলেও স্বপ্ন দেখছে পাকিস্তান। গেল সপ্তাহে সরফরাজ বলেন, ‘আমাদের কিছুই হারাবার নেই, আমরা শুধু আমাদের স্বাভাবিক খেলাটা খেলতে চাই। আমরা এই টুর্নামেন্টে ভালো খেলার ব্যাপারে আশাবাদি এবং এটি আমরা জিততে চাই।’
তারপরও উভয় দলের খেলোয়াড়রা দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর এই ক্রিকেট যুদ্ধকে ‘শুধুমাত্র একটি খেলা’ হিসেবেই দেখছেন।
আইসিসি ওয়ানডে বিশ্বকাপ বা টুয়েন্টি টুয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তানের কাছে কখনোই হারেনি ভারত। যদি আগামীকালকের ম্যাচে ভারত জিতে যায়, তবে শ্রীলংকা-দক্ষিণ আফ্রিকাকে নিয়ে ঐ গ্রুপে ভালো অবস্থায় থাকবে ভারত।
ভারত দল (সম্ভাব্য : বিরাট কোহলি (অধিনায়ক), রোহিত শর্মা, শিখর ধাওয়ান, যুবরাজ সিং, অজিঙ্কা রাহানে, কেদার যাদব, মহেন্দ্র সিং ধোনি (উইকেটরক্ষক), দিনেশ কার্তিক, হার্ডিক পান্ডে, রবীন্দ্র জাদেজা, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, ভুবনেশ্বর কুমার, জসপ্রিত বুমরাহ, উমেশ যাদব, ও মোহাম্মদ সামি।
পাকিস্তান দল(সম্ভাব্য) : সরফরাজ আহমেদ (অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক), আহমেদ শেহজাদ, আজহার আলী, মোহাম্মদ হাফিজ, বাবর আজম, শোয়েব মালিক, হারিস সোহেল, ইমাদ ওয়াসিম, ফকর জামান, ফাহিম আশরাফ, মোহাম্মদ আমির, ওয়াহাব রিয়াজ, জুনায়েদ খান, হাসান আলী ও শাহদাব খান।

এ বিভাগের সর্বশেষ